ঢাকাWednesday , 9 December 2020
  1. অপরাধ-দূনীর্তি
  2. আইন-আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. খেলাধুলা
  6. চিকিৎসা
  7. জাতীয়
  8. দেশজুড়ে
  9. ধর্ম
  10. বিনোদন
  11. মতামত
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

অসহায় বৃদ্ধা রিজিয়া বেগমকে মায়ের সম্মানে কাছে টেনে নিলেন এসপি জাহিদুল ইসলাম

NAYAN AHMMED
December 9, 2020 9:49 am
Link Copied!

এ, এর, ডাবলু:

বাংলাদেশ পুলিশের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র চুয়াডাঙ্গা জেলার পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম। যে ব্যক্তি তার সাথে কথা বলেনি, তাকে বোঝানো যাবেনা তিনি কি ধরনের মানবিক গুণাবলি সমৃদ্ধ ব্যক্তি। এমন পুলিশ যে জেলায় থাকবে সে জেলার মানুষ পুলিশকে নিয়ে গর্ব করবে এটাই স্বাভাবিক। কারণ পুলিশের পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি তিনি এ জেলায় পুলিশ সুপার হিসেবে যে পরিমাণ মানবিক কাজ করেছেন তার জন্য জেলাবাসী তাকে আজীবন মনে রাখবে৷ ইতোমধ্যে তিনি জেলার প্রতিটা মানুষের কাছে মানবিক পুলিশ সুপার হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন, যে উপাধি জেলাবাসী তাকে ভালোবেসে দিয়েছে৷ করোনাকাল থেকে শুরু করে এখনো পর্যন্ত তিনি যে সমস্ত মানবিক কাজ করেছেন তা লিখে হয়তো শেষ করা যাবে কিন্তু কত সময় লাগবে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাবেনা।

সেই সমস্ত মানবিক কাজের ধারাবাহিকতায় এবার অসহায় বৃদ্ধা রিজিয়া বেগম (৬০) কে মায়ের সম্মান দিয়ে কাছে টেনে নিলেন। হাতে তুলে দিলেন শাড়ি ও নগদ টাকা। রিজিয়া বেগম পুলিশ সুপারের মানবিক গুণের কথা বিভিন্ন মারফতে শুনে তার কার্যালয়ে হাজির হন, তবে কোন অভিযোগ জানাতে নয়। দারিদ্রের কষাঘাতে জর্জরিত হয়ে তিনি একটুখানি আশা নিয়ে পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলামের কাছে আসেন। ভরণ পোষন দেওয়ার মত স্বামী কিংবা সন্তান তার নাই। প্রয়োজন একটি শাড়ীর। চাহিদা খুবই কম। কিন্তু এই স্বল্প চাহিদা পূরণের ভরসাস্থল তার অজানা। অশ্রুসিক্ত দুটি নয়নে অসহায়ের মত পুলিশ সুপারের সামনে হাজির হলে মানবিক পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম তাকে মায়ের সম্মানে কাছে টেনে নেন। অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে শোনেন তার দুঃখের কথা। রিজিয়া বেগম তার মনের কথা পুলিশ সুপারের কাছে বলতে পারায় তার দু’চোখ দিয়ে পরিতৃপ্তির অশ্রু ঝরে পড়ে। মানবিক পুলিশ সুপার তাকে তাৎক্ষণিকভাবে একটি শাড়ী এবং ঔষধ কেনার জন্য নগদ টাকা প্রদান করেন। তিনি আরো আশ্বস্ত করেন চুয়াডাঙ্গাবাসীর যেকোন প্রয়োজনে পুলিশ সুপারের দুয়ার রাতদিন ২৪ ঘন্টা খোলা আছে।

এ সময়, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, সমাজের সর্বস্তরের সামর্থ্যবান মানুষ যদি অসহায় সুবিধা বঞ্চিতদের দিকে একটু সুদৃষ্টি দেয়, তাহলে আমাদের সমাজে সুবিধা বঞ্চিতদের মুখেও হাসি ফোঁটানো সম্ভব। এসময়ে তিনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাসহ সকল বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।