ঢাকাSunday , 3 January 2021
  1. অপরাধ-দূনীর্তি
  2. আইন-আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. খেলাধুলা
  6. চিকিৎসা
  7. জাতীয়
  8. দেশজুড়ে
  9. ধর্ম
  10. বিনোদন
  11. মতামত
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

আন্দুলবাড়ীয়ায় হেলিকপ্টার যোগে আসক এর নেতৃবৃন্দ; নিষ্পত্তি হয়নি পিতা-পুত্রের বিরোধ

NAYAN AHMMED
January 3, 2021 2:55 am
Link Copied!

আন্দুলবাড়ীয়া প্রতিনিধি:


জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়ায় দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা পিতা পুত্রের বিরোধ নিষ্পত্তি করতে এসে চরম অপমানিত হয়ে বিদায় নিয়েছেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ও আইন সহায়তা কেন্দ্র আসক এর নেতৃবৃন্দ। ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের প্রথম পক্ষের ছোট ছেলে মোস্তফা তাজওয়ারের আবেদনের ভিত্তিতে হেলিকপ্টার যোগে শনিবার আন্দুলবাড়ীয়ায় আসবেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা (আসক) নেতৃবৃন্দ, গত শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও স্থানীয় জনমুখে এই খবর ছড়িয়ে পড়লে হেলিকপ্টার দেখার অপেক্ষায় গতকাল শনিবার সকাল থেকেই স্থানীয় মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা যায়। বাজার সংলগ্ন আন্দুলবাড়ীয়া হাইস্কুল ফুটবল মাঠে সকাল ৯টা থেকেই হাজার হাজার উৎসুক জনতার ঢল নামে। এ সময় দমকল বাহিনীর একটি দল উপস্থিত ছিলেন সেইসাথে শাহাপুর ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন। সকাল সাড়ে ১১টায় ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত হওয়ার পর উৎসুক হাজার হাজার জনতা নিরাপত্তার বাঁধ ভেঙে হেলিকপ্টার দেখতে আন্দুলবাড়ীয়া হাইস্কুল মাঠে প্রবেশ করে। দুপুর ১২টায় হেলিকপ্টার যোগে আন্দুলবাড়ীয়া পৌঁছান আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা আসক এর ঢাকা বিভাগীয় প্রধান লোকমান হোসেন, সহযোগী ডাঃ মোমিন সিরাজী ও পিএস সোহেল হোসেন। এ সময় স্থানীয় সাংবাদিকদের তোপের মুখে নাজেহাল হয়ে পড়েন আসকের নেতৃবৃন্দ। চ্যানেল২৪ এর সাংবাদিক রেজাউল করিম লিটনসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা বক্তব্য নেন স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ, ও পিতা-পুত্র সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের। আন্দুলবাড়ীয়া সরকার প্লাজায় কুশল বিনিময় শেষে, আন্দুলবাড়ীয়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের অফিসে বিচার সালিশি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল গড়িয়ে বিকাল হলেও হয়নি কোনো সমাধান। আলোচনা সভায় স্থানীয়দের প্রত্যাশা ছিলো পিতা পুত্রের বিরোধ নিষ্পত্তি ও সুনামের সাথে স্বাভাবিক ব্যাবসা কার্যক্রম পরিচালিত হোক। দিনভর তোপের মুখে ছিলো আসকের নেতৃবৃন্দ, হয়নি কোনো বিরোধ নিষ্পত্তি। বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দের একের পর এক যুক্তিতর্কে দীর্ঘ সময় পার হয়। আন্দুলবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ শফিকুল ইসলাম মোক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, আগত অতিথি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ঢাকা বিভাগের প্রধান লোকমান সাহেব, ডাঃ মোমিন সিরাজী, পিএস সোহেল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা পাবলিক প্রসিকিউটর আলমগীর হোসেন, সরদার আল আমিন, আব্দুল হান্নান শাহ প্রমুখ। এ সময় বক্তরা পিতা পুত্রের বিরোধ নিষ্পত্তি করতে আবারো স্থানীয়ভাবে বসে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের পরামর্শ প্রদান করেন। আলোচনা সভায় পিতা-পুত্রদের তেমন একটা কথা বলতে দেখা যায়নি। আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম, ওসি (তদন্ত) ফেরদৌস ওয়াহিদ, দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকার জীবননগর প্রতিনিধি কাজী সামসুর রহমান চঞ্চল, সাংবাদিক আতিয়ার রহমান, জীবননগর সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জাহিদুল ইসলাম বাবু,
জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, অসংখ্য সাংবাদিকবৃন্দসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও হাজার হাজার উৎসুক জনতা।