ঢাকাThursday , 18 February 2021
  1. অপরাধ-দূনীর্তি
  2. আইন-আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. খেলাধুলা
  6. চিকিৎসা
  7. জাতীয়
  8. দেশজুড়ে
  9. ধর্ম
  10. বিনোদন
  11. মতামত
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

মহেশপুরে কৃষকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সমির আলীর হেকিমি ঔষধ | JN7

Rasel Munna
February 18, 2021 6:06 pm
Link Copied!

জয় নিউজ সেভেন ।। ঝিনাইদহের মহেশপুরে ফসলের উৎপাদন জন্য কৃষকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে গাছড়া দিয়ে তৈরি সমির আলীর হেকিমি ঔষধ। সরেজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে জানাগেছে উপজেলার সামন্তাবাজারে বিভিন্ন গাছ গাছড়াসহ ১০/১২টি উপকরণ দিয়ে তৈরি তরল জাতীয় ঔষধ সারের সাথে মিশিয়ে জমিতে দিলে ধানে নোনা লাগা, পচা রোগ প্রতিরোধ করা, গাছ সতেজ রাখা, ফসল ভালো হওয়া এবং সার কম লাগে।

উপজেলার কাজীরবেড় ইউনিয়নের সামন্তা ষাট নলপাড়া গ্রামের মৃত মসলেম মিয়াজীর ছেলে সরিম আলী এই ্ঔষধের আবিষ্কারক। গত ১০/১২ বছর যাবৎ ছোট্ট পরিসরে তিনি এ কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন। বর্তমানে এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। তার এ হেকিমি ঔষধ ব্যবহার করে এলাকার কৃষকরা উপকৃত হচ্ছে। এই ঔষধ ধান, আলু, ভুট্টা, কপি, সরিষা, মুসুরীসহ সব ধরনের চাষে ব্যবহার করা যায়। এক বিঘা জমিতে ২শ গ্রাম তরল ঔষধ ব্যবহার করে চাষীরা উপকৃত হচ্ছেন।

কাজীরবেড় গ্রামের হাজী লুৎফর হমাননের ছেলে ফারুক আহম্মেদ বলেন সমির আলীর হেকিমী ঔষধ ব্যবহার করে আমি উপকার পেয়েছি। আমি শুধু একা না এলাকার অনেকেই এই হেকিমি ঔষধ ব্যবহার করে উপকৃত হয়েছেন। সে কারনে তার এ ঔষধ এলাকার মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কাজীরবেড় ইউপি চেয়ারম্যান বি এম সেলিম রেজা জানান সমির আলীর ঔষধ ব্যবহার করে এলাকার কৃষকরা উপকৃত হচ্ছে, সার কম লাগছে। সেকারনে পরিবেশ বান্ধব এই হেকিমি ঔষধ এলাকায় বর্তমানে অনেক জনপ্রিয়।

মহেশপুর উপজেলা কৃষি অফিসার হাসানা আলী বলেন সমির আলীর ঔষধের ফলাফর ভালো কিন্তু সরকারের অনুমোদন না থাকার কারনে আমি কৃষদেরকে ব্যবহারের পরামর্শ দিতে পারছি না। সমির আলী বলেন, আমার এ ঔষধ পরিবেশ বান্ধব। এলাকার কৃষকা উপকৃত হওয়ার করানে ঔষধ কোম্পানীর লোকেরা আমাকে বিভিন্ন সময় হুমকি দিয়ে আসছে। তার পরেও এলাকায় আমার ঔষধ অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তিনি সারাদেশে এ ঔষধ ছড়িয়ে দিতে সরকারের উচ্চ মহলের সহযোগিতা কমনা করেন।

হেকিমি ঔষধ সামনে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে সমির আলী | ছবি: জয় নিউজ সেভেন

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি।