ঢাকাTuesday , 13 April 2021
  1. অপরাধ-দূনীর্তি
  2. আইন-আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. খেলাধুলা
  6. চিকিৎসা
  7. জাতীয়
  8. দেশজুড়ে
  9. ধর্ম
  10. বিনোদন
  11. মতামত
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. সম্পাদকীয়

রক্তদানের মাধ্যমে মুমূর্ষু রোগীর পাশে দাড়াচ্ছে “উথলী রক্তদান সংগঠন”-JN7

shomrat hossain
April 13, 2021 11:45 pm
Link Copied!

জয় নিউজ সেভেন ।। কথায় আছে রক্তের টান বড় টান। যতই মতপার্থক্য বা মনোমালিন্য থাকুক না কেন রক্তের কোন আত্মীয় বিপদে পড়লে সবকিছু ভুলে যেয়ে মানুষ সেখানে চলে যায়। এটাই প্রকৃতির নিয়ম। সারাবিশ্বের মানবজাতির এই একটা জায়গায় মিল আছে আর তাহলো সবার রক্ত লাল যা গরীব, ধনী, বংশ-মর্যাদা, জাতীয়তা কোনকিছুর উপরই নির্ভর করেনা। আমরা এমন এক দেশে বাস করি যেখানে বিনা স্বার্থে কারো মাথার একটি চুলও পাওয়া যায়না, কিন্তু মানুষের বেঁচে থাকার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান রক্ত বিনা পয়সায় পাওয়া যায়। আর এভাবেই মুমূর্ষু রোগীদেরকে বিনা স্বার্থে রক্তদান করে বেঁচে থাকতে সহায়তা করছে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার “উথলী রক্তদান সংগঠন”। শুধুমাত্র এটিই নই জেলার বিভিন্ন স্থানে এমন রক্তদান সংগঠন রয়েছে আরও অনেক।

২০১৩ সালের দিকে যাত্রা শুরু করে উথলী রক্তদান সংগঠন। সেইথেকে আজ পর্যন্ত সহস্রাধিক মুমূর্ষু রোগীকে রক্তদান করে জীবন বাঁচাতে সহায়তা করেছে উথলী রক্তদান সংগঠনের সদস্যরা। নিজেদের পকেটের টাকা খরচ করে জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল, ক্লিনিক, নার্সিং হোম এমনকি জেলার বাইরে গিয়ে তারা রক্তদান করে থাকে। এই সংগঠনের বেশীরভাগ সদস্যই বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী হওয়ায় তাদের পকেটে তেমন টাকা-পয়সা থাকেনা। নিজেদের পকেটে টাকা না থাকলে বন্ধু-বান্ধব এবং বড় ভাইদের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে হলেও তারা রক্তদান করতে যায়। এতে তারা একটুও পিছপা হয়না।

মঙ্গলবার (১৩ই এপ্রিল) সংগঠনটির উপদেষ্টা মোঃ হাসানুজ্জামান ফরহাদ ২৫তম বারের মতো রক্তদান করলেন। এছাড়া এই সংগঠনে আরও অনেক সদস্য আছেন যারা এর থেকেও বেশীবার অসুস্থ রোগীকে রক্তদান করেছেন। কিন্তু সবসময়ের স্থিরচিত্র ধারণ বা প্রমাণপত্র রাখা সম্ভব হয়না। সুস্থ সবল মানুষদেরকে রক্তদানে উৎসাহিত করতে হাসানুজ্জামান ফরহাদের ২৫তম রক্তদান উপলক্ষ্যে কেক কেটেছেন উথলী রক্তদান সংগঠনের সদস্যরা। মঙ্গরবার সন্ধ্যায় উথলী বাজারস্থ আমাদের জুয়েলার্সের স্বত্বাধিকারী হাবিবুর রহমানের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে এই কেক কাটা হয়।

এ প্রসঙ্গে উথলী রক্তদান সংগঠনের প্রধান সমন্বয়ক ও জীবননগর উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান বলেন, “সুস্থ দেহ সুস্থ মন, সতেজ করবে মুমূর্ষু জীবন”। এই চিন্তাধারা নিয়ে এগিয়ে এলে যে কেউ রক্তদানে আগ্রহী হতে পারবে। এ ক্ষেত্রে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা অনেক এগিয়ে। আগামীতে যারা এ কাজে সামিল হতে চান তাদেরকে উজ্জীবিত করতেই আমাদের এই উদ্যোগ। আমরা চাই, হাসানুজ্জামান ফরহাদের মতো আরও অনেক ফরহাদ শুধু ২৫ না, শতবার রক্ত দিয়ে জীবনের গর্বিত কাজ করে যাক। বর্তমানে আমাদের সংগঠনে ১০০ মতো সদস্য রয়েছে যারা বিভিন্ন জায়গায় যেয়ে মূমুর্ষু রোগীকে রক্তদান করে থাকে।

রক্তদানের বিষয়ে নিজের অনুভূতির কথা ব্যক্ত করে ফরহাদ বলেন, আজ জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। ভাবতেই ভালো লাগছে ২৫টি শরীরে আমি মিশে যেতে পেরেছি। রাতে জানতে পারি পাশ্ববর্তী এলাকার একটি শিশুর শরীরে জরুরি ভিত্তিতে এক ব্যাগ ‘এ’ পজিটিভ রক্ত দিতে হবে। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই একটি ক্লিনিকে গেলাম এবং রক্ত দিলাম। বাড়ি ফিরে দেখি এই আয়োজন। তখনি জানতে পারলাম আজ ২৫তম বার রক্ত দিলাম আমি। আমি চাই যুবক/যুবতিরা যেন সেচ্ছায় রক্তদানে আগ্রহী হয়।